Vivo Y12s (2021) স্মার্টফোনটি হল লঞ্চ

Vivo Y12s 2021 স্মার্টফোনটি হয়েছে লঞ্চ
Vivo Y12s (2021) স্মার্টফোনটিকে গত বছর লঞ্চ হওয়া Vivo Y12s স্মার্টফোন এর আপগ্রেড হিসাবে লঞ্চ করে দেওয়া হয়েছে। নতুন এই ভিভো ফোনটি ওয়াটারড্রপ স্টাইলের ডিসপ্লে নচ এবং ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এর সাথে আসে, যা সংস্থাটি তাদের 2020 মডেলটিতেও দিয়েছিল। এই ফোনে একটি 20:9 অ্যাসপেক্ট রেশিওর ডিসপ্লে এবং 5000 এমএএইচ ব্যাটারিও রয়েছে, যা আগের জেনারেশনের Vivo Y12s ফোনের সমান। তবে আগের বছরের মডেলের তুলনায় Vivo Y12s (2021) ফোনটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 439 প্রসেসরের সাথে আসে। জানিয়ে দেই যে 2020 এর Vivo Y12s ফোনটি মিডিয়াটেক হেলিও পি 35 প্রসেসরের সাথে এসেছিল, যদিও ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টটি স্ন্যাপড্রাগন 439 প্রসেসরের সাথে এসেছিল।
 

Vivo Y12s (2021) ফোনের মূল্য

Vivo Y12s (2021) ফোনটির মূল্য 3,290,000 VND (আনুমানিক 10,500) রাখা হয়েছে। এই দামে গ্রাহকরা এই ফোনটির সিঙ্গেল 3 জিবি র‌্যাম + 32 জিবি স্টোরেজ ভেরিয়েন্টটি কিনতে পারবেন। এই ফোনটি বর্তমানে ইকমার্স ওয়েবসাইট FPTShop এর মাধ্যমে ভিয়েতনামে ক্রয়ের জন্য উপলব্ধ করা হয়েছে, যাকে আইস ব্লু এবং মিস্টিরিয়াস ব্ল্যাক রঙের বিকল্পে কেনা যাবে। তবে জানিয়ে দেই যে অন্যান্য বাজারে ফোনটির উপলব্ধতা সম্পর্কে কোন তথ্য এই মুহূর্তে প্রকাশ করেনি সংস্থানটি।
 

Vivo Y12s (2021) ফোনের স্পেসিফিকেশন

স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে কথা বলি যদি ডুয়াল ন্যানো সিম সাপোর্ট Vivo Y12s (2021) ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড 11 ভিত্তিক ফানটাচ ওএস 11 এর উপর চলে। এটিতে 6.51 ইঞ্চির এইচডি + 720×1600 পিক্সেলের আইপিএস ডিসপ্লে রয়েছে, যার 20:9 এর অ্যাসপেক্ট রেশিও এর সাথে আসে।  এটি ছাড়াও ফোনটিতে 3 জিবি র‌্যাম সহ একটি অক্টা কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন 439 প্রসেসর ব্যাবহার করা হয়েছে।  ফটোগ্রাফির জন্য এই ফোনটিতে ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে।

যারমধ্যে প্রথম ক্যামেরা হল এফ/2.2 অ্যাপারচার সহ 13 মেগাপিক্সে সেন্সরের এবং দ্বিতীয়টি হচ্ছে এফ/2.4 অ্যাপারচার সহ 2 মেগাপিক্সেল সেন্সরের। অন্যদিকে সেলফি এবং ভিডিও কলিংয়ের জন্য, এই ফোনটিতে এফ/1.8 অ্যাপারচার সহ 8 মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট সেন্সর দেওয়া হয়েছে। Vivo Y12s (2021) ফোনটিতে 32 জিবি স্টোরেজ রয়েছে, যাকে প্রয়োজন হলে মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে বাড়ানোও সম্ভব হবে। কানেক্টিভিটি বিকল্পের মধ্যে এতে 4জি এলটিই, ওয়াই ফাই,

ব্লুটুথ ভি4.2, জিপিএস/এজিপিএস, এফএম রেডিও, 3.5 মিলিমিটারের হেডফোন জ্যাক এবং মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সেন্সরগুলির মধ্যে অ্যাক্সিলোমিটার, এম্বিয়েন্ট লাইট সেন্সর, মিগ্নেটোমিটার এবং প্রক্সিমিটি সেন্সর অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। ফোনটিতে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরও দেওয়া হয়েছে। এতে পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে কাজ করবে 5000 এমএএইচ এর ব্যাটারি, যা 10 ওয়াট এর চার্জিংকে সমর্থন করে। এছাড়া এটির ডাইমেনশন 164.41×76.32×8.41 এবং ওজন 191 গ্রাম।

Post a Comment

0 Comments