Vivo Y52 5G স্মার্টফোনটিকে ইউরোপে লঞ্চ করে দেওয়া হয়েছে

ইউরোপে Vivo Y52 5G স্মার্টফোনটিকে লঞ্চ করে দেওয়া হয়েছে

Vivo Y52 5G স্মার্টফোনটি ইউরোপে সাশ্রয়ী বিকল্প হিসাবে লঞ্চ করে দেওয়া হয়েছে। Vivo Y52 5G ফোনের সাথে ইউরোপিও বাজারে Vivo Y72 5G ফোনকেও পেশ করা হয়েছে। যা বাস্তবে মার্চ মাসে থাইল্যান্ডে লঞ্চ হয়েছিল।  Vivo Y52 5G ফোনে পাওয়ার দিতে কাজ করবে 5000 এমএএইচ এর ব্যাটারি। এই ফোনটি ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ এর সাথে আসে। আপনি ফোনে ডুয়াল সিম সমর্থন এবং প্রসারিত স্টোরেজও পাবেন। এছাড়া এই স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড 11 ভিত্তিক ফানটাচ ওএসে কাজ করে।
 

Vivo Y52 5G ফোনের মূল্য

Vivo বর্তমানে Vivo Y52 5G ফোনের দাম কি সেটা থেকে পর্দা উঠায়নি। এই ফোনটির 4 জিবি র‌্যাম + 128 জিবি স্টোরেজ ভেরিয়েন্ট রয়েছে। তবে এই মুহূর্তে এটা স্পষ্ট নয় যে এই স্মার্টফোনটি কেবল এই বৈকল্পিকটিতে নক করবে বা অন্যান্য বিকল্পে উপলব্ধ থাকবে। অন্যদিকে Vivo Y72 5G ফোনের মূল্য হোল 299 ইউরো (যা প্রায় 26,700 টাকা)।
 

Vivo Y52 5G ফোনের স্পেসিফিকেশন

ডুয়াল ন্যানো সিম সাপোর্ট Vivo Y52 5G স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড 11 ভিত্তিক ফানটাচ ওএস 11.1 এর উপর চলবে। এই স্মার্টফোনটিতে 6.58 ইঞ্চির ফুল এইচডি + 1080x2408 ডিসপ্লে রয়েছে। এছাড়া এই ফোনটিতে মিডিয়াটেক ডায়মেন্সিটি 700 প্রসেসর ব্যাবহার করা হয়েছে। আর এটির সাথ দিবে 4 জিবি র‌্যাম এবং 128 জিবির স্টোরেজ।

প্রয়োজন পড়লে এই ফোনের স্টোরেজটিকে মাইক্রো এসডি কার্ডের সাহায্যে বাড়ানোও সম্ভব হবে। ফটোগ্রাফির জন্য এই স্মার্টফোনটিতে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সেটআপ দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে প্রথম ক্যামেরা অটোফোকাস সহ 48 মেগাপিক্সেলের সেন্সর, দ্বিতীয়টি 2 মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো সেন্সর এবং তৃতীয়টি হচ্ছে 2 মেগাপিক্সেল বোকেহ লেন্স। অন্যদিকে সেলফি এবং ভিডিও কলিংয়ের জন্য

এই স্মার্টফোনের ফ্রন্টে নচ ডিজাইন রয়েছে যার মধ্যে 8 মেগাপিক্সেলের সেন্সর দেওয়া হয়েছে। কানেক্টিভিটি ফিচারের জন্য Vivo Y52 5G ফোনটিতে ওয়াই ফাই, ব্লুটুথ, জিপিএস, ইউএসবি টাইপ সি এবং 3.5 মিলিমিটারের হেডফোন জ্যাক অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। এছাড়া এই স্মার্টফোনটিতে পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে কাজ করবে 5000 এমএএইচ এর ব্যাটারি, যা 18 ওয়াটের দ্রুত চার্জিং সমর্থন সহ আসে।

Post a Comment

0 Comments